Travel

ভোলা কিসের জন্য বিখ্যাত

সুপারি এবং মিষ্টির জন্য বিখ্যাত ভোলা। ভোলা কিসের জন্য বিখ্যাত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্য কুইন আইল্যান্ড অব বাংলাদেশ খেতাবটি এই জেলার দখলেই। দক্ষিণ এশিয়ার সর্বোচ্চ ওয়াচ টাওয়ার ভোলাতেই অবস্থিত। নদী পথে শান্তির বাহন বিলাশবহুল লঞ্চগুলো ভোলার মানুষের গর্ব।

ভোলা জেলার উত্তরে বরিশাল জেলা, পশ্চিমে পটুয়াখালী জেলা, পূর্বে লক্ষীপুর জেলা এবং দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর অবস্থিত। পূর্বে ভোলা জেলা বৃহত্তর বরিশাল জেলার একটি মহকুমা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত ছিল। কিন্তু ১৯৮৪ সালে ভোলা মহাকুমাকে বরিশাল জেলা থেকে আলাদা করে একটি পূর্ণাঙ্গ জেলার মর্যাদা দেওয়া হয়। ভোলা জেলার আয়তন প্রায় ৩,৪০০ বর্গ কিলোমিটার এবং ১৮ লক্ষ মানুষ এই দ্বীপ জেলাটিতে বসবাস করে।

ভোলা কিসের জন্য বিখ্যাত

ভোলা জেলা বাংলাদেশের বরিশাল বিভাগের একটি জেলা। ভোলা জেলা বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ দ্বীপ। কুইন আইল্যান্ড অব বাংলাদেশ এই নামটি আবার ভোলা জেলার। এই খেতাবটি বাংলাদেশে কেবল ভোলা জেলার। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্য ভোলা জেলা এই খেতাবটি অর্জন করে। ভোলা জেলাতে রয়েছে ৭টি উপজেলা ও ৭০ টি ইউনিয়ন।

ভোলা জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত

ভোলা জেলা মূলত মিষ্টি ও সুপারির জন্য বিখ্যাত। এছাড়া মহিষের টক দধি বিখ্যাত। এছাড়া দেশের ইলিশের সিংহভাগ চাহিদা পূরণের জন্য ভোলা জেলা থেকে ইলিশ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রেরণ করা হয়।

ভোলা জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহ

ভোলা জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহের নাম নিচে উপস্থাপন করা হলো:

  • চর মনপুরা
  • তেঁতুলিয়া রিভার ইকোপার্ক
  • জ্যাকব টাওয়ার
  • বক ফোয়ারা
  • নিজাম হাসিনা ফাউন্ডেশন মসজিদ
  • ভোলা কায়াকিং পয়েন্ট
  • মনপুরা ল্যান্ডিং স্টেশন
  • মেঘনা-শাহবাজপুর পর্যটন কেন্দ্র
  • সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্ক
  • সৌন্দর্যের দ্বীপ চর কুকরি-মুকরি
  • ইলিশ ফোয়ারা
  • তাড়ুয়া সমুদ্র সৈকত ও ম্যানগ্রোভ বন
  • বেতুয়া প্রশান্তি পার্ক
  • মঙ্গল শিকদার লঞ্চঘাট
  • ভোলা কায়াকিং পয়েন্ট
  • শাহবাজপুর গ্যাস ক্ষেত্র
  • সাকুচিয়া দক্ষিণ ইউনিয়ন ম্যানগ্রোভ বন
  • বোরহানউদ্দিন চৌধুরীর জমিদার বাড়ি
  • উপকূলীয় সবুজ বেষ্টনী
  • খামার বাড়ি -নজরুল নগর, চরফ্যাশন
  • বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্মৃতি যাদুঘর
  • ফাতেমা খানম মসজিদ

এছাড়া ভোলা জেলায় রয়েছে আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ দর্শনীয় স্থান। এ সকল দর্শনীয় স্থান আপনাকে মুগ্ধ করবে।

আড়ো পড়ুন: পটুয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত

  • বিখ্যাত ভোলা জেলার একটি ছোট দ্বীপ হচ্ছে মনপুরা দ্বীপ। আপনাদের হয়তো মনপুরা সিনেমাটি অবশ্যই দেখেছেন। এই সিনেমাটির পটভূমি কিন্তু ভোলা জেলার এই ক্ষুদ্র দ্বীপটি। ভোলা জেলা কেন বিখ্যাত প্রশ্নটির একটি বিকল্প উত্তর হতে পারে মনপুরা দ্বীপ। মনপুরা দ্বীপ একসময় পর্তুগিজ জলদস্যুদের আস্তানা ছিল। পরবর্তীতে ইংরেজরা পর্তুগিজদের এই দ্বীপটি থেকে বিতাড়িত করে এবং এখানে এখন হাজার হাজার মানুষ বসবাস করছে। মনপুরা দ্বীপটির আয়তন ৩৭৩ বর্গ কিলোমিটার। মনপুরা দ্বীপটি আসলে একটি উপজেলাও বটে, চারটি ইউনিয়ন নিয়ে এই উপজেলা গঠিত। ভোলা থেকে এই দ্বীপটির দূরত্ব মাত্র ৪০ কিলোমিটার।
  • ভোলা জেলাতে রয়েছে বাংলাদেশে একমাত্র ওয়াচ টাওয়ার। ভোলার শহর থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে চর ফ্যাশন নামক উপজেলায় এই ওয়াচ টাওয়ারটি অবস্থিত। জ্যাকব ওয়াচ টাওয়ারটি শুধু বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় টাওয়ার নয়, একই সাথে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ওয়াচ টাওয়ার। এই টাওয়ারটির ধারণ ক্ষমতা ৫০০ জন পর্যটক। জ্যাকব টাওয়ারের উপর থেকে বাইনোকুলারের সাহায্যে ১০০ কিলোমিটার দূরে যেকোনো বস্তু দেখতে পাওয়া যায়। জ্যাকব টাওয়ার ভোলা জেলার একটি প্রধান আকর্ষণীয় পর্যটন স্থান হয়ে দাঁড়িয়েছে।
  • ভোলা জেলাতে সবচেয়ে উন্নত মানের মহিষের টক দই পাওয়া যায়। এই টক দই সারা বাংলাদেশে মুখরোচক খাবার হিসেবে খ্যাতিপ্রাপ্ত। এছাড়া উপকূলীয় জেলা হওয়ায় এখানে সুপারি গাছ প্রচুর পরিমাণে দেখতে পাওয়া যায়। ভোলার সুপারি সারা বাংলাদেশে চাহিদা মেটাতে সক্ষম হয়েছে। ভোলা জেলাকে একটি ডিজিটাল জেলা হিসেবে গড়ে তোলা যেন বাংলাদেশ সরকার বদ্ধ পরিকর। মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরেও ভোলা জেলায় যাতে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ অটুট থাকে, সেজন্য সাবমেরিন কেবলের মাধ্যমে এই জেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে।
প্রশ্ন: ভোলা জেলা কেন বিখ্যাত?

উত্তর: মহিষের টক দই এবং অন্যান্য মিষ্টি জাতীয় খাবারের জন্য

প্রশ্ন: বাংলাদেশের একমাত্র দ্বীপ জেলা কোনটি?

উত্তর: ভোলা জেলা

প্রশ্ন: আয়তনে দিক দিয়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় দ্বীপ কোনটি?

উত্তর: ভোলা

প্রশ্ন: মনপুরা দ্বীপটি কোন জেলার অন্তর্গত?

উত্তর: ভোলা জেলার অন্তর্গত

প্রশ্ন: বাংলাদেশের বৃহত্তম টাওয়ার কোনটি?

উত্তর: ভোলা জেলার জ্যাকব টাওয়ার

প্রশ্ন: ভোলা জেলার পূর্ব নাম কি?

উত্তর: দক্ষিণ শাহবাজপুর

প্রশ্ন: কোন নদীটি ভোলা জেলাকে বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন করেছে?

উত্তর: মেঘনা নদী

প্রশ্ন: ভোলা জেলা কোন নদীর মোহনায় অবস্থিত?

উত্তর: মেঘনা নদীর মোহনায় অবস্থিত

প্রশ্ন: দ্বীপের রানী বলা হয় কোনটিকে?

উত্তর: ভোলা জেলাকে

প্রশ্ন: ভোলা জেলায় আবিষ্ককৃত গ্যাসক্ষেত্রটির নাম কি?

উত্তর: শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্র

ভোলা জেলার বিখ্যাত খাবার

ভোলা বিখ্যাত খাবার এর তালিকা রয়েছে মহিষের _ এর টক দই। এছাড়া ভোলা জেলার আঞ্চলিক কিছু খাবার রয়েছে। এ সকল খাবারের স্বাদ অতুলনীয়। ভোলা জেলার মানুষের আত্মীয়তা আপনাকে মুগ্ধ করবে।

ভোলা জেলার আয়তন কত?

৩,৪০৩.৪৮ বর্গ কিলোমিটার হলো ভোলা জেলার আয়তন।

ভোলা জেলার থানা কয়টি?

ভোলা জেলার থানার সংখ্যা ১০টি।

ভোলা জেলার পূর্বের নাম কি?

দক্ষিণ শাহবাজপুর হলো ভোলা জেলার পূর্বের নাম।

ভোলা জেলার ওয়েবসাইট ঠিকানা
http://www.bhola.gov.bd/

5/5 - (1 vote)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button