Travel

ঢাকা থেকে কুয়াকাটা কত কিলোমিটার

ঢাকা থেকে কুয়াকাটা কত কিলোমিটার

বিভিন্ন প্রয়োজনে মাঝেমধ্যেই আমাদের অনেকের ঢাকা থেকে কুয়াকাটা যাওয়ার প্রয়োজন পড়ে। ঢাকা থেকে কুয়াকাটা কত কিলোমিটার তাই ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব জেনে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ঢাকা থেকে কুয়াকাটা ২৯৫.৫ কিলোমিটার। ঢাকা থেকে কুয়াকাটা যেতে সময় লাগবে ৬ ঘণ্টা ৪০ মিনিট।

বাই রোড ঢাকা থেকে কুয়াকাটা কত কিলোমিটার

বাই রোড ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব ২৯৫.৫ কিলোমিটার।তবে ঢাকার কোন জায়গা থেকে আপনার জার্নি শুরু হবে এবং কুয়াকাটার কোথায় পৌছাতে চান তার উপর নির্ভর করে দূরত্ব এবং সময়ের কিছুটা তারতম্য হতে পারে।এছাড়া কুয়াকাটা যাওয়ার সময় রাস্তার যানজট অবশ্যই বিবেচনায় রাখা উচিত।

ঢাকা থেকে কুয়াকাটা কত মাইল

মাইলের হিসাবে ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব মাত্র ১৮৪ মাইল।

ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব জেনে রাখা কেন গুরুত্বপূর্ণ

  • বাংলাদেশে ব্যাবসা-বানিজ্যের প্রাণকেন্দ্র ঢাকা হওয়াতে কুয়াকাটা থেকে প্রতিদিন বহু মানুষ ঢাকা যাওয়া-আসা করছেন।
  • বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য কুয়াকাটার অনেক শিক্ষার্থী ঢাকার কলেজ-ভার্সিটিতে ভর্তি হচ্ছেন।এদের যাতায়াতের
  • সুবিধার জন্য ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব জেনে রাখা জরুরী।
  • উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজনে কুয়াকাটার অনেক রোগীকে ঢাকা আনতে হয় প্রায়ই।এক্ষেত্রেও ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব জেনে রাখা জরুরী।
  • ঢাকা থেকে যারা ভ্রমনের উদ্দেশ্যে কুয়াকাটা যেতে চাচ্ছেন তাদের জন্য কুয়াকাটার বিভিন্ন স্থানের দূরত্ব জেনে নেয়া আবশ্যক।
  • বিভিন্ন চাকরীর পরীক্ষায় ঢাকা থেকে কুয়াকাটার বিভিন্ন স্থানের দূরত্ব সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্ন আসতে দেখা যায় মাঝে মধ্যেই।
  • এক্ষেত্রে চাকরিপ্রত্যাশী ছাত্র-ছাত্রীদের ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব সম্পর্কিত প্রশ্নের উত্তর জেনে রাখা উচিৎ।

 

  • কুয়াকাটা থেকে ঢাকার বাস ছাড়ে সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে, ঐ বাস মিস করলে ওইদিন আর ঢাকার মুখ দেখতে হবে না, কাজেই টাইমিংটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
    ক্যাম্পিং এর জন্য ফাতরার চর ভালো যায়গা, ঐখানে সিকিউরিটি আছে, গঙ্গামতির চর হলো বেস্ট, বাট ঐখানে সিকিউরিটি নাই, ডাকাতের আক্রমণে পড়ার সম্ভাবনা মোর দ্যান ৬০ %
  • ট্রলারে করে সব জায়গায় যাওয়া যাবে না। আর সময় ও অনেক বেশী লাগবে। সেইক্ষেত্রে বাইক এ করে ঘুরে আসা যেতে পারে। বাইক গুলো ১৫ টা স্পট ঘুরিয়ে আনবে। বাইক এর চালক রাই আপনাকে খুঁজে নিবে। কষ্ট করে তাদের খুঁজতে হবে না। আপনার কাজ শুধু দামাদামি করা। দামাদামি করে ৫০০ টাকার মধ্যেই বাইক ঠিক করা যেতে পারে।
  • আমতলী থেকে কুয়াকাটা বাসের ছাদে করে যাওয়া উত্তম।। রাস্তার দুইপাশের ছোট-মাঝারি-বড় হরেক আকারের হাজার খানেক পুকুর আপনাকে বিস্মিত এবং মুগ্ধ করবেই ।।
রাস্তা-ঘাটের কি অবস্থা?

পটুয়াখালী থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত রাস্তা বিশ্বমানের। আর বরিশাল হয়ে গেলে, বরিশাল থেকে পটুয়াখালি পর্যন্ত রাস্তা খুব একটা সুবিধার না, তবে একেবারে খারাপ ও না।

কুয়াকাটার দর্শনীয় স্থান কি কি?

কুয়াকাটার দর্শনীয় স্থানের মধ্যে পড়ে

৩৬ ফুট লম্বা স্বর্ণের (!) বৌদ্ধ মূর্তি
সাগরের পাশেই বেড়ীবাধের উপরে আরেকটা বৌদ্ধ মূর্তি,
শুটকিপল্লী এবং লেবুর চর
ফাতরার চর
লাল কাঁকড়ার দ্বীপ
মোহনীয় মায়াময়ী গঙ্গামতির চর, যেখানে দাঁড়িয়ে সূর্যোদয় দেখা যায়।
যেই কুয়াটার নামে এই জায়গায় নামকরণ হয়েছে সেই কুয়া
(এটার অবস্থা খুবই খারাপ, লোকজন ময়লা ফেলে অ

5/5 - (1 vote)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button