Travel

জামালপুর কিসের জন্য বিখ্যাত

জামালপুর কিসের জন্য বিখ্যাত: একটি সুন্দর ও ঐতিহ্যবাহী স্থান জামালপুর জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত? জামালপুর জেলা বুড়ির দোকানের রসমালাই, ছানার পোলাও এবং ছানার পায়েসের জন্য বিখ্যাত । জামালপুর হস্ত শিল্পের জন্যও বিখ্যাত। ভারত থেকে আমদানিকৃত পন্য ও রপ্তানির অন্যতম প্রধান কেন্দ্র হল জামালপুর। জামালপুর কিসের জন্য বিখ্যাত: জামালপুরের সৌন্দর্য, ঐতিহ্য, এবং অদ্ভুত অভিজ্ঞতা

জামালপুর কিসের জন্য বিখ্যাত

জামালপুর জেলা বুড়ির দোকানের রসমালাই, ছানার পোলাও এবং ছানার পায়েসের জন্য বিখ্যাত।

জামালপুর জেলার ১০টি বিখ্যাত বা দর্শনীয় স্থান:

হযরত শাহ জামাল (রহ.) মাজারহযরত শাহ কামাল (রহ.) মাজারমালঞ্চ মসজিদপাঁচ গম্বুজবিশিষ্ট রসপাল জামে মসজিদদয়াময়ী মন্দিরনরপাড়া দুর্গলাউচাপড়া পিকনিক স্পটমুক্তিযুদ্ধে জামালপুর ১১ নং সেক্টরমধুটিলা ইকোপার্কগান্ধী আশ্রম

জামালপুর জেলাটি বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলে ময়মনসিংহ বিভাগের একটি অঞ্চল। আয়তনে জামালপুর জেলাটি প্রায় ২০৩১.৯৮ বর্গ কিমি। এ জেলাটির পশ্চিমে রয়েছে যমুনা নদী, নদীর তীরবর্তী জেলাগুলো: বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, গাইবান্ধা এবং কুড়িগ্রাম জেলা, পূর্বে অবস্থিত শেরপুর জেলা ও ময়মনসিংহ জেলা, দক্ষিনে অবস্থিত টাঙ্গাইল জেলা এবং উত্তরে রয়েছে ভারতের মেঘালয় রাজ্য ও গারো পাহাড়ে বিস্তৃত, তারপর কুড়িগ্রাম জেলা।

মোট ৭টি উপজেলা নিয়ে জামালপুর জেলাটির প্রশাসনিক অঞ্চল বিস্তৃত।

  • আয়তনের দিক দিয়ে জামালপুর জেলা বাংলাদেশের ১৮তম বৃহৎ জেলা। এটির মোট আয়তন ৭৮৪ বর্গমাইল। বসবাসকারী মোট জনসংখ্যা ২৩৮৪৮৮১ জন। অর্থাৎ প্রতি বর্গ কিলোমিটারে বসবাসকারী গড় জনসংখ্যা ১২০০ জন।
  • সাক্ষরতার হার প্রায় ৩৮.৫%। সেক্ষেত্রে সাক্ষরতার হারের দিক দিয়ে বেশ পিছিয়ে থাকবে জামালপুর জেলা। জামালপুর জেলার পূর্ব নাম সিংহজানি।
এক দৃষ্টি

স্বাগতম পাঠকবৃন্দ! আমরা আজ এখানে আসছি জামালপুরের সৌন্দর্য, ঐতিহ্য, এবং বিখ্যাতির জন্য। আমরা এই নিবন্ধে জামালপুর শহরের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, ঐতিহ্য, এবং অদ্ভুত অভিজ্ঞতা নিয়ে আলোচনা করব।

জামালপুরে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য

জামালপুর বাংলাদেশের একটি নিরাপদ পর্যটক স্থান, যেখানে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য প্রশংসা প্রাপ্ত করে। এখানে সবুজ বাগান, শান্ত নদীর কিনারা, এবং শোভন আকাশের নীল আলো – সবটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে একত্রিত থাকে।

জামালপুরের ঐতিহ্য

জামালপুরে অনেক ঐতিহ্যবাহী স্থান রয়েছে, যেগুলি পর্যটকদের বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করায়।

কুষ্টিয়া প্রাচীন মন্দির

জামালপুরে অবশেষে কুষ্টিয়া প্রাচীন মন্দিরটি অত্যন্ত প্রশংসা পায়, এটি একটি বৌদ্ধ মন্দির, যেখানে পূজারীদের মাঝে অনেক পূজা এবং অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

শ্রীবরদা

জামালপুরে শ্রীবরদা অত্যন্ত প্রসিদ্ধ, এটি একটি বৌদ্ধ মন্দির, যেখানে পর্যটকরা ধ্যান ও ধ্যান অনুষ্ঠানে অংশ নেয়।

Google News

জামালপুরের স্থানীয় খাবার

জামালপুরে আপনি অদ্ভুত স্থানীয় খাবারের অধিকারী হতে পারেন। এই স্থানের খাবার অত্যন্ত স্বাদু এবং নিরাপদ থাকে।

ইলিশ মাছের ডিশ

জামালপুরে ইলিশ মাছের ডিশ অত্যন্ত জনপ্রিয়, এটি এখানে স্থানীয় স্বাদে পরিপূর্ণ থাকে এবং সাথে ধানের বাউল ও ভর্তা এসে থাকে।

পিঠা-পুলি

জামালপুরে তৈরি পিঠা-পুলি খেতে অত্যন্ত আনন্দ পেতে পারেন, এটি এখানের বিশেষ খাবার।

জামালপুরে প্রাকৃতিক স্পা

জামালপুরে একটি অদ্ভুত প্রাকৃতিক স্পা রয়েছে, যেখানে পর্যটকরা নিজেদের পুনর্মিলন করতে পারেন, যার ফলে শারীরিক স্বাস্থ্য ও মানসিক শান্তি পেতে পারেন।

জামালপুর বিখ্যাত ব্যক্তি

খালিদ মোশাররফ

বীর উত্তম খেতাবপ্রাপ্ত সাহসী মুক্তিযোদ্ধা এবং বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক।

আব্দুস সালাম

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের সাবেক মহাসচিব এবং বাংলাদেশের অন্যতম রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।

আনোয়ার হোসেন

বাংলার মুকুট বিহীন নবাব খেতা প্রাপ্ত চলচ্চিত্র শিল্পী আনোয়ার হোসেনের জন্ম জামালপুর জেলায়। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র প্রেমি প্রত্যেকটি প্রজন্মের কাছে তিনি পরিচিত। সুতরাং এখন নিশ্চয়ই বলার অপেক্ষা রাখে না জামালপুর জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত।

আব্দুল করিম

বাংলাদেশের সাবেক স্পিকার এবং বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ।

মরহুম আনোয়ার উল্লাহ

একজন ভাষা সৈনিক। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে তিনি পুলিশের গুলিতে নিহত হন।

 

5/5 - (1 vote)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button