Travel

নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত

নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত নোয়াখালী জেলা মূলত অতিথি আপ্যায়নে তৈরি পিঠা, ম্যাড়া পিঠা, সাইন্না পিঠা, পাটিসাপটা পিঠা, নারিকেলের নাড়ু, মরিচ খোলা, খোলাজা পিঠা ইত্যাদির জন্য বিখ্যাত। এছাড়া নোয়াখালীতে নিঝুম দ্বীপ ও স্বর্ণদ্বীপ অন্যতম।

নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত

নোয়াখালী জেলার অবস্থান বাংলাদেশের দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলে। এই জায়গাটি চট্টগ্রাম বিভাগের অন্তর্ভুক্ত। নোয়াখালী জেলার মোট আয়তন ৩৪৩৫.৬৩ বর্গ কিলোমিটার। এ জেলার সকল তথ্য পাওয়া যাবে সরকারি ওয়েবসাইট www.noakhali.gov.bd এই ওয়েবসাইটে।

এ জেলার আদি নাম বা প্রাচীন নাম ছিল ভুলুয়া। একই সাথে নোয়াখালী সদর থানা পূর্ব নাম ছিল সুধারাম। এই জেলার উত্তরে কুমিল্লা জেলা দক্ষিণে মেঘনার মোহনা এবং বঙ্গোপসাগর পূর্বে ফেনী জেলা এবং চট্টগ্রাম জেলা অবস্থিত পশ্চিমে লক্ষ্মীপুর ও ভোলা জেলা অবস্থিত।

সর্বশেষ আদমশুমারি ২০২২ অনুসারে, এ জেলার মোট জনসংখ্যা ৯১ লক্ষ ৬৩ হাজার ৭৬০ জন। যার মধ্যে পুরুষ ৪৫ লক্ষ ৬৬ হাজার ৩৯ জন এবং মহিলা ৪৫ লক্ষ ৯৭ হাজার ৭৬ জন। নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত এবং নোয়াখালী বিখ্যাত ব্যক্তি সহ নানা অজানা তথ্য জানতে পারব।

আরো পড়ুন: ময়মনসিংহ কিসের জন্য বিখ্যাত

নোয়াখালী জেলার আয়তন কত

নোয়াখালীর মোট আয়তন 4,202.70 বর্গকিলোমিটার (1,622.67 বর্গমাইল)

নোয়াখালীর মোট জনসংখ্যা কত

নোয়াখালী জেলার জনসংখ্যা 33,70,251।

নোয়াখালী জেলা কোন বিভাগে অবস্থিত

নোয়াখালী জেলা মূলত বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত চট্টগ্রাম বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল। এর পূর্ব নাম ছিল “ভুলুয়া”। উপজেলার সংখ্যা অনুসারে নোয়াখালী বাংলাদেশের একটি ” এ” শ্রেণীভূক্ত জেলা।

গুগল নিউজ ফলো করুন

নোয়াখালী জেলার দর্শনীয় স্থানগুলো হল

  • নোয়াখালী ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক, ধর্মপুর * দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থা পার্ক, হাতিয়া কমলার দীঘি, হাতিয়া *গাজী ইয়াকুব আলী (রঃ) মাজার শরীফ, সেনবাগ *নলুয়া মিয়াবাড়ি জামে মসজিদ, সেনবাগ *গ্রীন পার্ক, চাতার পাইয়া বাজার সংলগ্ন, সোনাইমুড়ি *মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয় * কল্লান্দি জমিদারবাড়ি * অরুণ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় *কমলা রানীর দীঘি *কল্যান্দী সর্বজনীন দূর্গামন্দির *গান্ধী আশ্রম *নিঝুম দ্বীপ, হাতিয়া *নিঝুম দ্বীপ জাতীয় উদ্যান *নোয়াখালী জেলা জামে মসজিদ *নোয়াখালী সরকারি কলেজ *পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার, নোয়াখালী *সোনাইমুড়ী কালীবাড়ি *নোয়াখালী দেবালয় মাইজদী *বজার শাহী মসজিদ * বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ মোঃ রুহুল আমিন গ্রন্থগর ও স্মৃতি জাদুঘর, সোনাইমুড়ী *বেগমগঞ্জ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ *মহাত্মা গান্ধী জাদুঘর, জয়াগ, সোনাইমুড়ি * ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল, চরবাটা *মাইজদী কোর্ট বিল্ডিং দিঘী স্বর্ণ দ্বীপ, হাতিয়া উপজেলা *বাংলাদেশের প্রাচীন ঐতিহ্য সুবিশাল আকৃতির সুউচ্চ “মঠ”। দশনী টবগা গ্রাম, চাটখিল, নোয়াখালী। *প্রতাপপুর রাজবাড়ী, সেনাবাহিনী। * চৌমুহনী পৌর মহাশ্মশান, চৌরাস্তা। চৌমুহনী পৌর পার্ক, আলিপুর, চৌরাস্তা। *ড্রিম হলিডে পার্ক, সোনাপুর। *ঠাকুর রামচন্দ্র দেব এর সমাধি আশ্রম, চৌমুহনী। *চেয়ারম্যান ঘাট, হাতিয়া। * গোয়ালখালি বিচ,মোহাম্মদপুর, সুবর্ণচর।

নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত

  • নোয়াখালী জেলা ঐতিহ্যবাহী মরিচ খোলাজা, নারকেল নাড়ু ইত্যাদির জন্য বিখ্যাত। শুধু তাই নয়, নোয়াখালী স্বর্ণদ্বীপ এবং নিঝুম দ্বীপের জন্য বিখ্যাত হয়ে উঠেছে।
  • ইতিহাস থেকে জানা যায় নোয়াখালী জেলা তার মনোরম সৌন্দর্য এবং সম্মিলিত সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের জন্য বিখ্যাত একই সাথে তাদের অতিথি আপ্যায়ন এবং তৈরি পিঠা (যেমন, মেরা পিঠা, ছাইন্না পিঠা, পাটিসাপটা পিঠা ইত্যাদি) অনেক জনপ্রিয়।
  • নোয়াখালী যার তাদের নিজস্ব ভাষা ও সেখানকার মানুষদের জন্য বিখ্যাত। এ জেলার ভাষা বাংলাদেশের অন্যান্য জেলার মানুষের কাছে কম বেশি জনপ্রিয়। সবচেয়ে মজার ব্যাপার যার কাছে শুনতে যেমনই লাগুক, নোয়াখালীর মানুষদের নোয়াখাইল্যা ভাষা বুঝতে কষ্ট হয়না কারো। এটাই মানুষের কৌতুহলের অন্যতম কারন।
  • নোয়াখালী জেলার একটি উল্লেখযোগ্য অংশ উপকূলীয় এলাকা নিয়ে গঠিত এবং বাকি বেশিরভাগই সমতলভূমি।দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলা চট্টগ্রাম বিভাগের ১২টি জেলার মধ্যে একটি। এটি একটি প্রশাসনিক জেলা যার সদর দপ্তর নোয়াখালী শহরে অবস্থিত। জেলায় পাঁচটি মহকুমা ও ১১টি উপজেলা রয়েছে।
  • বিখ্যাত খাবার নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত খাবার ? এ জেলার বিখ্যাত খাবারের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে নারকেল নাড়ু এবং পাটিসাপটা পিঠা।

 

  • কলা পাতার মরিচ গুলা বা পাতুরি
  • খোলাযা
  • নারিকেল নাড়ু
  • ম্যারা পিঠা
  • ছাইন্না পিঠা এবং
  • পাটিসাপটা পিঠা

নোয়াখালী বিখ্যাত ব্যক্তি

  • নোয়াখালী জেলা অনেক বিখ্যাত ব্যক্তির বাসস্থান। নোয়াখালী বিখ্যাত ব্যক্তি হলেন শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ মোঃ রুহুল আমিন, ওবায়দুল কাদের, শহীদ বুদ্ধিজীবী এ এম এম মনির চৌধুরী, হাবিবুর রহমান, আতাউর রহমান, চিত্তরঞ্জন সাহা ও প্রভৃতি।
  • এছারাও রয়েছেন বাংলা একাডেমী বই মেলার উদ্যোক্তা, গীতিকার , সুরকার, সংগীত পরিচালক, গায়ক, মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। চলুন এক নজরে জেনে নেই নোয়াখালী জেলার ২০ জন বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ দের সম্পর্কে।

উপজেলা সমূহ

  • নোয়াখালী জেলায় মোট ৮টি পৌরসভা, ৭২ টি ওয়ার্ড এবং ১৫৩ টি মহল্লা রয়েছে। সেই সাথে এখানে ৫১ ইউনিয়ন, ৮৮২টি মৌজা এবং ৯৬৭টি গ্রাম রয়েছে।
  • নোয়াখালী জেলার উপজেলা সমূহ হচ্ছেঃ নোয়াখালী সদর, বেগমগঞ্জ, চাটখিল, কোম্পানিগঞ্জ, হাতিয়া, সেনবাগ, সুবর্ণচর, সোনাইমুড়ী এবং কবিরহাট উপজেলা।
  • নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত এবং নোয়াখালী বিখ্যাত ব্যক্তি সম্পর্কে জানলেন। এবার চলুন জেনে নিই এ জেলার কিছু দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে।

দর্শনীয় স্থানসমূহ

  • নোয়াখালী জেলার বিখ্যাত দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে বজরা শাহী জামে মসজিদ, নোয়াখালী ভাষানচর, নিঝুম দ্বীপ, স্বর্ণদ্বীপ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। যুগের পর যুগ ধরে এসব স্থান নোয়াখালীর সেরা দর্শনীয় স্থান হিসেবে অনন্য মর্যাদা লাভ করে আসছে।

বেশ কিছু দর্শনীয় স্থান রয়েছে-

  • বজরা শাহী জামে মসজিদ
  • রুহুল আমিন গ্রন্থাগার ও স্মৃতি জাদুঘর
  • স্বর্ণদ্বীপ
  • ভাষানচর
  • নিঝুম দ্বীপ

 

  • বজরা শাহি জামে মসজিদঃ ঐতিহাসিক ঐতিহাসিক এই মসজিদটি নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার বজরা ইউনিয়ন অবস্থিত। আনুমানিক ১৮ শতাব্দীতে নির্মিত এই মসজিদটি ১৯৯৮ সাল থেকে বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধীনে রয়েছে।
  • রুহুল আমিন গ্রন্থাগার ও স্মৃতি জাদুঘরঃ বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের চরণ সহযোগিতা আর অসামান্য বীরত্বের জন্য যে ৭ জন বিরশ্রেষ্ঠ কে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক সম্মান “বীরশ্রেষ্ঠ” উপাধিতে ভূষিত করা হয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম রুহুল আমিন।
  • তিনি বর্তমান সোনাইমুড়ি উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার নামে বীরশ্রেষ্ঠ মোঃ রুহুল আমিন গ্রন্থাগার ও স্মৃতি জাদুঘর ২০০৮ সালে ২০ জুলাই নোয়াখালী জেলা সদর থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে সোনাইমুড়ি উপজেলার দেওটি ইউনিয়নের বাগপাচরা গ্রামে নির্মাণ করা হয়।
  • নোয়াখালী স্বর্ণদ্বীপঃ ১৯৭৮ সালের নোয়াখালী দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর ও মেঘনা নদীর মোহনায় জেগে ওঠে একটি দ্বিপ। স্থানীয় ভাসায় যার নাম জাহাইজ্জ্যার চর। যার বর্তমান নাম স্বর্ণদ্বীপ।
  • ভাষানচরঃ ভাষানচর মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় জেগে ওঠা বাংলাদেশের একটি ছোট্ট দ্বিপ। যেটা কিনা মায়ানমার রোহিঙ্গা দের আশ্রয়স্থল হিসেবে বহুল পরিচিত।
  • যারা শুধু নোয়াখালী জেলাকে তাদের অতিথি আপ্যায়ন, এবং বিভিন্ন পিঠার জন্য বিখ্যাত বলে থাকেন তারা আসলে ভুল ভাবছেন।
  • যারা নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত এই সম্পর্কে জানতে চান তাদের উদ্দেশ্য বলি নোয়াখালী শুধু এসবের জন্যই বিখ্যাত না নোয়াখালী তাদের দর্শনীয় স্থান, তাদের বিখ্যাত ব্যক্তি ইত্যাদির জন্যও অনেক বিখ্যাত।

নোয়াখালী কিসের জন্য বিখ্যাত

নোয়াখালী জেলা তাদের অতিথি আপ্যায়ন, বিভিন্ন পিঠা পান্ডুয়া এসব ছাড়াও ঐতিহ্যবাহী মরিচ খোলা, নারকেল নাড়ু ইত্যাদির জন্য বিখ্যাত।

নোয়াখালীর উপজেলা কয়টি ?
  • নোয়াখালী জেলায় মোট ৯টি উপজেলা রয়েছে।
  • নোয়াখালী জেলার বিখ্যাত ব্যক্তি
  • নোয়াখালী জেলার বিখ্যাত ব্যক্তিদের মধ্যে ওবায়দুল কাদের এবং ডঃ সিরিজ চৌধুরী অন্যতম। এছাড়াও রয়েছেন চিত্তরঞ্জন শাহা এবং হাবিবুর রহমান।
নোয়াখালী পুরাতন নাম কি ?

নোয়াখালী জেলার প্রাচীন নাম ছিল ভুলুয়া। নোয়াখালী সদর থানার আদি নাম সুধারাম।

 

5/5 - (1 vote)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button